সিলেট ভ্রমনের চেকলিষ্ট

বেশ কিছুদিন আগে গিয়েছিলাম সিলেট ভ্রমনে। স্থানীয় কেউ সাথে ছিলো না তাই নিজেরা ঘোরাফেরা করার জন্য নেট ঘেটে একটি চেকলিষ্ট বানিয়েছিলাম কোথায় কোথায় ঘুরতে যাওয়া যায় সেটা ঠিক করার জন্য। সেই লিষ্টটি আবার এই ব্লগে লিখে রাখছি যেন ভবিষ্যতে কেউ যদি সিলেটা ভ্রমনে যেতে চায় তাহলে এই পেইজটি রেফার করতে পারি। সিলেট সম্পর্কে খুঁজতে গিয়ে প্রথমেই যেটা পেলাম সেটা হচ্ছেঃ

চাদঁনী ঘাটের সিড়িঁ/ আলী আমজাদের ঘড়ি/ বন্ধু বাবুর দাড়ি/ আর জিতু মিয়ার বাড়ি

কোথাও কোনো ভূল থাকলে বা তথ্যের অসম্পূর্নতা থাকলে দয়া করে কমেন্টে উল্লেখ করবেন, আমি ঠিক করে নেব। আমি ভ্রমন কে কয়েক ভাগে ভাগ করেছিলাম সুবিধার জন্য। যেমন শহরের ভিতরে কি কি দেখার আছে, জাফলং এবং শ্রীমঙ্গলে কোথায় যাওয়া যেতে পারে। একদম সংক্ষেপে লিষ্টটি দিয়ে দিচ্ছি, পরে চেকলিষ্ট হিসেবে ব্যাবহার করা যেতে পারে। উল্লেখ্য এখানের অনেক কিছুই ইন্টারনেট থেকে নেয়া হয়েছে তাই ‘কপি-পেষ্ট’ টার্মটি মনে না রাখলেও চলবে 🙂

শহরের ভিতরেঃ
০১। মিউজিয়াম অব রাজাসঃ মরমী কবি হাছন রাজা ও পরিবারের অন্য সদস্যদের স্মৃতি সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে সিলেট নগরীর প্রানকেন্দ্র জিন্দাবাজারে গড়ে তোলা হয়েছে একটি যাদুঘর।
০২। মালনীছড়া চা বাগানঃ  মালনীছড়া এবং লাক্ষাতুড়া চা বাগান দুইটিই সিলেট শহরের উপকন্ঠে অবস্থিত। শহরের কেন্দ্রস্থল জিন্দাবাজার পয়েন্ট হতে গাড়ীতে মাত্র ১৫ মিনিটের পথ।
০৩। ক্বীন  ব্রিজ
০৪। আলী আমজদের ঘড়িঘর
০৫। জিতু মিয়ার বাড়ীঃ সিলেট নগরীর শেখঘাটে কাজীর বাজারের দক্ষিণ সড়কের ধারে ১ দশমিক ৩৬৫ একর ভুমি জুড়ে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী জিতু মিয়ার বাড়ি।
০৬। গাজী বুরহান উদ্দীনের মাজারঃ সিলেট শহরের দহ্মিণ পূর্ব সীমান্তে সুরমা নদীর তীরে এ মাজার অবস্থিত
০৭. বঙ্গবীর ওসমানী শিশু পার্কঃ সিলেট শহরের ধোপাদীঘির পাড়ে পার্কটি অবস্থিত
০৮। হযরত শাহজালাল (রাঃ) এর মাজার শরীফ
০৯। হযরত শাহ পরাণ (রাঃ) এর মাজার শরীফ
১০। শাহী ঈদগাহ

জাফলং ট্যুরঃ
০১। শাহী ঈদগাহ
০২। এম.সি. কলেজ
০৩। হরিপূর গ্যাস ফিল্ড
০৪। জাকারিয়া সিটিঃ  সিলেট শহর থেকে মাত্র ৯ কিলোমিটার দূরে সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের পাশে খাদিমনগর ইউনিয়নের দলইপাড়া গ্রামে এই উন্নতমানের পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র অবস্থিত
০৫। লালাখালঃ সিলেট শহর হতে লালাখাল যাবার জন্য আপনাকে পাড়ি দিতে হবে ৩৫ কি.মি রাস্তা। আপনি বাস, মাইক্রো ও টেম্পু যোগে লালাখাল যেতে পারেন
০৬। জাফলংঃ সিলেট থেকে বাস/ মাইক্রোবাস/ সিএনজি চালিত অটোরিক্স্রায় জাফলং যাওয়া যায়, সময় লাগবে ১ ঘন্টা হতে ১.৩০ ঘন্টা।
০৭. এছাড়াও জাফলং যাবার পথে আছে রাণীর বাড়ি ও রাজার দরবার
০৮। তামাবিল
০৯। ভোলাগঞ্জ

মাধবকুন্ড-শ্রীমঙ্গল ট্যুরঃ
০১। মাধব কুন্ড (জলপ্রপাত)
০২। মাধবকুন্ড  ইকোপার্ক
০৩। হাকালুকি হাওর
০৪। হাইল হাওর-বাইক্কা বিল
০৫। সিতেশ দেবের মিনি চিড়িয়াখানাঃ শহরতলীর ভাড়াউড়া এলাকায় অবস্থিত
০৬। ওয়্যার সিমেট্রি – ডিনস্টন সিমেট্রিঃ শ্রীমঙ্গল শহর থেকে গাড়িযোগে খেজুরীছড়া চা বাগানের ফ্যাক্টরির সামনে গিয়ে সেখান থেকে ডানদিকে রাজঘাট চা বাগানের রাস্তায় সামান্য এগুলেই ডান পাশে চোখে পড়ে ওয়্যার সিমেট্রিটি।
০৭। নির্ম্মাই শিববাড়ীঃ আজ থেকে প্রায় ৫৫৫ বছর আগে ১৪৫৪ খ্রিস্টাব্দে শ্রীমঙ্গলের বালিশিরা পরগনার শঙ্করসেনা গ্রামে নির্ম্মাই শিববাড়ী প্রতিষ্ঠিত হয়। চতুর্দশ শতাব্দীতে বালিশিরা অঞ্চলের ত্রিপুরার মহারাজা রাজত্ব করতেন। প্রবল শক্তিশালী এ রাজার বিরম্নদ্ধে ‘কুকি’ সামন্তরাজা প্রায়ই বিদ্রোহ ঘোষণা করতেন। এরকম কোন একদিনে কুকি রাজার বিদ্রোহের সংবাদ পেয়ে মহারাজা একদল সৈন্য পাঠান বিদ্রোহ দমন করতে। তুমুল এ যুদ্ধে কুকিরা পরাজিত হলেও মহারাজার প্রধান সেনাপতি রণক্ষেত্রে নিহত হন। বিয়ের অল্প ক’বছরের মধ্যেই স্বামীহারা হন মহারাজা কন্যা নির্ম্মাই। তখনকার দিনে ভারতবর্ষে সহমরণ প্রথা চালু ছিল। কিন্তু রাজকন্যা সহমরণে রাজি না হয়ে স্বামী নিহত হবার স্থানে এসে শিবের আরাধনা শুরু করেন। তার নামেই শিববাড়ীর নামকরণ করা হয় নির্ম্মাই শিববাড়ী।
০৮। লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানঃ মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত
০৯। বাংলাদেশ চা গবেষনা ইনস্টিটিউট

এছাড়াও যা দেখা হয়নি, আপনার দেখে আসতে পারেনঃ

০১। জৈন্তাপূর
০২। মহাপ্রভু শ্রী চৈত্যনো দেবের বাড়ী
০৩। মুনিপুরী রাজবাড়ি
০৪। মুনিপুরী মিউজিয়াম
০৫। হাইল হাওর
০৬। বাইক্কা বিল
০৭। মাগুরছড়া পরিত্যক্ত গ্যাসকুপ
০৮। খাসিয়া পান পুঞ্জি
০৯। মণিপুরী পল্লী
১০। রাবার বাগান-
১১। আনারস বাগান
১২। লেবু বাগান
১৩। ভাড়াউড়া লেক
১৪। ওফিং হিল
১৫। বার্নিস টিলা
১৬। যজ্ঞ কুন্ডের ঝর্ণা
১৭। মাধবপুর লেক
১৮। ভোলাগঞ্জ রোপওয়ে
১৯। চেরাপুঞ্জির নিচে

আরও কিছু বাদ পড়েছে কি না বুঝতে পারছি না। তবে ফেরার সময় মনে হল যা দেখেছি তার চেয়ে না দেখার পরিমান এখনো বেশী। এর পরে গেলে আরও সময় নিয়ে যাবো আশাকরি।

Advertisements
This entry was posted in আঁকিবুঁকি, ভ্রমন. Bookmark the permalink.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s